ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার সম্পূর্ণ গাইডলাইন

আপনি কি একজন ওয়েব ডেভলপার হতে চান? আমি এখন আপনাকে বলব একজন ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার জন্য কোন কোন বিষয়গুলো আপনাকে শিখতে হবে শুধু তাই নয় আপনাকে এটাও বলব ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার পর কি কি বেনিফিট এবং সুবিধা আপনার জন্য ওপেন হয়ে যাবে এবং কিছু গটু রিসোর্স দিয়ে দিব জিনিসগুলোকে ব্যবহার করে আপনি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শেখার জার্নি শুরু করে দিতে পারবেন। তাহলে চলুন আর দেরি না করে শুরু করে দিন

 

ওয়েব ডেভলপার মূলত কি করে থাকে? ওয়েবসাইট তৈরি করে থাকে আপনি অনলাইনে যত ধরনের ওয়েবসাইট ভিজিট করছেন সবগুলো ওয়েবসাইট যেমন প্রথম আলো,  ফেসবুক, ইউটিউব ইত্যাদি এগুলো কিন্তু কোনো ডেভেলপাররা তৈরি করেছে। একটি ওয়েবসাইট মূলত ২টি অংশ থাকে একটি ডিজাইন অন্যটি ডেভেলপমেন্ট। ব্যবহারকারীরা সাধারণত ডিজাইন টা দেখে থাকেন তারা ডেভেলপমেন্ট দেখতে পায় না সবসময়। ইউটিউব ভিডিওটি দেখতে কেমন? লাইক বাটন গুলো দেখতে কেমন? কমেন্ট গুলো দেখতে কেমন?

এগুলো হচ্ছে ডিজাইন। কিন্তু আপনি যখন লাইক বাটনে ক্লিক করছেন, কমেন্ট করছেন! কমেন্টটা সেভ হয়ে আছে, লাইক কাউন্ট বেড়ে গেছে এটা হচ্ছে ডেভেলপমেন্ট। আপনি যখন লাইকটা হিট করেছেন তখন তা ইউটিউবের ডাটাবেজ এ গিয়ে সেভ হয়েছে। ডাটা বেজ হচ্ছে মেমোরি কার্ড এর মত। মেমোরি কার্ড এর মধ্যে যেভাবে ছবি, গান, ভিডিও রাখতে পারি, ডাটাবেজ ও সেম। লাইক, ভিউ এগুলো ডাটাবেজ এ সেভ হয়ে থাকে।

তো বেসিক্যালি আমরা ডিজাইনটাই দেখে থাকি। আর ভিতরে যেই কাজ গুলো হয়ে ঐ গুলো হচ্ছে ডেভেলপমেন্ট এর পার্ট। যেটা দেখা যায় না। মূলত ৩ ধরনের ওয়েব ডেভেলপার আছে।

১) Front-end Developer

২) Back-end Developer

৩) Full-Stack Developer

 

Front-end Developer: Front-end Developer রা মূলত ডিজাইনার। তারা অ্যাপ বা ওয়েবসাইট ডিজাইন করে থাকে Adobe Photoshop, Adobe Illustrator অথবা Scratch এর মাধ্যমে। এবং সেই ডিজাইন কে তারা Html, Css ও Java code এ কনভার্ট করে যেটা ফাংশনাল না।

Back-end Developer: Back-end Developer দের ও Front-end Development এর উপর ধারনা থাকতে হয়। কিন্তু Back-end Developer রা ডিজাইন এর পার্ট টা করে না। তারা Front-end Developer দের কাছ থেকে স্টাটিক Code গুলো নিয়ে সেটাকে ডায়নামিক করে।

অর্থাৎ একটি ওয়ার্কিং ওয়েবসাইট বা অ্যাপ এ পরিনিত করে। যেটার একটি এডমিন প্যানেল থাকে। যেখান থেকে একটি ওয়েবসাইট এর যাবতীয় সব কন্টেন্ট পরিবর্তন করা যায় বা নতুন কনটেন্ট যুক্ত করা যায়। এতে ব্যবহারকারি খুবই সহজে তার কনটেন্ট দিতে পারে। তাকে আর Coding জানা লাগতেছে না।

তো আপনি যদি এখন একজন ভালো ডেভেলপার হতে চান তাহলে আপনাকে মূলত নিম্নলিখিত বিষয় গুলো শিখতে হবে।

  • HTML
  • CSS
  • Javascript & jQuery
  • Bootstrap

এগুলো শেখার পর আপনাকে server site script language শিখতে হবে। যেন আপনি আপনার ওয়েবসাইটিকে ডায়নামিক ও ফাংশনাল করতে পারেন। অনেক গুলো সার্ভার সাইট আছে।

যেমনঃ

  • PHP
  • RUBY
  • PYTHON
  • NODE JS

আপনি এখান থেকে যেকোনো একটাকে নিয়ে আপনি কাজ করবেন। PHP সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্ভার সাইট Language।

সার্ভার সাইট Language PHP সেখার পরে আপনি শিখবেন WordPress অথবা Laravel । পুরো অনলাইন জগতে যত ওয়েবসাইট আছে তার ৩০% থেকে ৪০% ওয়েবসাইট Worpress দিয়ে  operate করা হয়।

এবং যতগুলো E-commerce ওয়েবসাইট আছে তার মধ্যে ৬০% এর বেশী ওয়েবসাইট Woo-commerce দিয়ে চলছে। যেটি কিনা WordPress এর একটি Plugin। তো বুঝতেই পারছেন WordPress এর খুবই বড় একটি মার্কেট আছে। যেটির উপরে প্রচুর কাজ পাওয়া যায়। PHP শেখার পরে আপনি হয় WordPress শিখবেন অথবা Laravel শিখবেন। Laravel ও খুবই জনপ্রিয় PHP ফ্রেমওয়ার্ক। তো আপনি হয় WordPress শিখবেন অথবা Laravel শিখবেন।

 

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *